Sisal Fibre (সিসাল ফাইবার)

সিসাল হলো প্রাকৃতিক,সেলুলোজিক,ভাস্কুলার জাতীয় ফাইবার।এটি একটি পাতা জাতীয় ফাইবার যা “Agava sisalana” নামক এক প্রকার ‘ক্যাকটাস জাতীয় গাছ থেকে হয়ে থাকে। এর পাতাগুলো অনেক তীক্ষ্ণ, সোজা এবং দেখতে তলোয়াড়ের মতো হয়ে থাকে।এ পাতা প্রক্রিয়াজাত করেই সিসাল আঁশ সংগ্রহ করা হয়।সাধারণত আফ্রিকা, মধ্য আমেরিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ফ্লোরিডা ও পশ্চিম ভারতীয় দীপপুঞ্জে সিসাল আঁশ জন্মে।বর্তমানে পূর্ব আফ্রিকা, মেক্সিকো, জার্কাতা,ব্রাজিল ও দক্ষিণ আমেরিকার অন্যান্য স্থানে ব্যপকভাবে সিসাল চাষ হয়ে থাকে। 

৬-৭ বছর বয়সে সিসাল গাছে ফুল আসে।ফুল ফোটার সময় গাছের উচ্চতা ২০ ফুট এর মতো হয়।সিসাল গাছ প্রায়ই ভূমি থেকে শুরু করে সারাজীবন প্রচুর পরিমানে পাতা দেয়।একটি ভালো গাছ সারাজীবনে ৪০০ এর মতো পাতা দেয় এবং প্রতি পাতায় প্রায় ১০০০ আঁশ থাকে।এ ফাইবারকে “লিফ ফাইবার” বলা হয়।একে কখনও কখনও “সিসাল শণ” বলে অভিহিত করা হয়। 

সিসাল ফাইবার এর ইতিহাস : 

প্রাচীন মেক্সিকো এর অ্যাজটেক সম্প্রদায় পরিধানের জন্য সিসাল নামক আঁশ থেকে তৈরী কাপড় ব্যবহার করতো। যা একধরনের গাছের পাতা থেকে সংগ্রহীত হতো।গাছটি মধ্য আমেরিকার স্বকীয়। মেক্সিকো উপসাগরীয় অঞ্চলে অবস্থিত ইউকাটন শহরের সিসাল বন্ধরের নামানুসারে এ ফাইবার এর নামকরণ করা হয়। 

সিসাল ফাইবার এর বৈশিষ্ট্য : 

১.সিসাল ফাইবার এর দৈর্ঘ্য সাধারণত ১০০-১৫০ মি.মি.এবং প্রস্থ ২২-৮০ মাইক্রোমিটার। 

২.এটি অনেক শক্তিশালী ফাইবার যা ব্যবহারের কারনে তুলনামূলক ভাবে কম ক্ষয়প্রাপ্ত হয়। 

৩.এই ফাইবার এর প্রসারণ ক্ষমতা তুলনামূলক ভাবে কম। এটি ২-৩% পর্যন্ত প্রসারিত হয়। 

৪.এ ফাইবার পুনরায় ব্যবহার উপযোগী। 

৫.সাধারণত এটি পাতার উপরিভাগের ত্বক থেকে সংগৃহীত একটি ফাইবার। 

৬.এ ফাইবার সাধারণত ধূলিকণা / ময়লা দ্বারা আকৃষ্ট হয় না এবং সহজে পানি শোষণ করে না। 

৭.এই ফাইবার সাধারণত পাটের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা হয় এবং কম্বলশিল্পেও এর আধিপত্য রয়েছে। 

৮.একে সহজে রং করা যায় এবং খুব সহজে রং ধরে রাখে। 

সিসাল ফাইবার এর রাসায়নিক উপাদান : 

১.সেলুলোজ – ৭১% 

২.হেমিসেলুলোজ- ১৮% 

৩.লিগনিন-৬% 

৪.পেকটিন-২.৩% 

৫.ফ্যাট এবং ওয়াক্স-০.৫% 

৬.পানিতে দ্রবনীয় পদার্থ -১.৭% 

সিসাল ফাইবার এর প্রস্তুতি: 

সিসাল গাছে অনেক পাতা জন্মে,যেগুলো একদম নিচের দিকের থেকেই উৎপন্ন হতে শুরু করে, এই পাতাগুলো শক্ত এবং fleshy অর্থাৎ শাঁসযুক্ত হয়ে থাকে।গাছ জন্মানোর ৬-৭ বছর পর গাছে ফুল ফোঁটে যা ২০ ফুট পর্যন্ত লম্বা হয়। যখন ফুল ফোঁটে,তখন গাছে ছোট ছোট কলি জন্মে যেটি পরবর্তীতে গাছে পরিনত হয়।সিসাল গাছের যখন ৪ বছর হয় তখন থেকে পাতা সংগ্রহ করা হয় এবং মৃত্যুর আগ পর্যন্ত এই গাছ থেকে পাতা সংগ্রহ করা হয়।১ম এ প্রাপ্ত বয়স্ক পাতাগুলোকে কাটা হয় এবং একটি মেশিনে দেয়া হয়,যা পাতার আঁশের মধ্য থেকে একধরনের নরম চিপচিপে পদার্থকে ঘষে বা ছেঁচে মসৃন বা সমান করে দেয়।তারপর ধোঁয়ার পর আঁশগুলোকে শুকানো হয়। Acid dyestuffs এবং ডিরেক্ট রং এর প্রতি সিসালের ভালো আসক্তি রয়েছে,যেটি ফাইবারকে আরোও উজ্জ্বল করে তোলে।সিসালকে উজ্জ্বল রং এ ডাই করা হয়ে থাকে এবং এর সঙ্গে কটন ডাই ও এসিড ডাই উভয়ই রঞ্জিত হয়ে থাকে।  

সিসাল ফাইবার এর ব্যবহার: 

১.সিসাল পাম্পে সেলুলোজ নিদিষ্ট অনুপাতে থাকায় এগুলোকে কাঠের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা হয়। 

২.উচ্চ শক্তি, উজ্জ্বলতা এবং পাকা রং এর কারনে সিসাল তন্তু বিভিন্ন আকর্ষনীয় কম্বল এবং মেয়েদের মাথার টুপি তৈরিতে ব্যবহৃত হয়। 

৩.জুতার ব্রাশ তৈরির কাজে ব্যবহৃত হয়। 

৪.সিসাল ফাইবার plaid,twill,herring dome এই তিন অবস্থায় পাওয়া যায় বলে এর বহুউল ব্যবহার রয়েছে। 

৫.সিসাল ফাইবারের অন্তরক বৈশিষ্ট্য থাকার কারনে এর দ্বারা ফাইবার গোল্ড তৈরী করা হয়। 

৬.উন্নতমানের দড়ি,জুতা,টুপি,ব্যাগ ও টেক্সটাইল শিল্পে এর বেশ জনপ্রিয়তা আছে। 

৭.সিসাল ফাইবার এন্টিস্যাফটিক হওয়ার কারনে এটি জীবাণু ও ধুলিকণা দ্বারা আকৃষ্ট হয় না বলে এর ব্যবহার  

স্বাস্থ্য সম্মত। 

বৈশ্বিক উৎপাদন বানিজ্য : 

২০০৭ সালে সিসাল ফাইবার গ্লোবাল প্রকাশনায় ব্রাজিল -বৃহত্তম উৎপাদক দেশ ১১৩,০০০ টন উৎপাদিত হয় যা ২৪০ হাজার টন পর্যন্ত উৎপাদিত হয়। 

তানজানিয়ায় ২৭.৬০০ টন উৎপাদিত হয়,কেনিয়ায় প্রায় ৩৭,০০০ টন,ভেনিজুয়েলাতে ১০.৫০০ টন এবং ৯০০০ টন মাদাগাস্কায় উৎপাদিত হয়। 

চীন,দক্ষিণ আফ্রিকা, মোজাম্বিক,হাইতি এবং কিউবা থেকে আসছে কম পরিমাণে ৪০,০০০ টন। 

সিসাল গাছের তন্তু বিশ্বের প্রকাশনায় ২% প্রতিনিধিত্বমূলক ফাইবার গাছপালার মধ্যে ৬ষ্ঠ স্থান দখল করে আছে।বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ প্রাকৃতিক ফাইবার এর মধ্যে ও সিসালকেও গন্য করা হয়। 

Likha Akter  
Department of Clothing and Textile  
Government College of Applied Human Science  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *